1. khaircox10@gmail.com : admin :
নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহরিয়ার চৌধুরীর নিবেদন - coxsbazartimes24.com
রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন

Ads

নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহরিয়ার চৌধুরীর নিবেদন

  • আপডেট সময় : শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৪৫ বার ভিউ

প্রিয় অভিভাবকবৃন্দ,
আসলামুলাইকুম।
মুজিবীয় শুভেচ্ছা জানবেন।

আমি শাহরিয়ায় চৌধুরী।
আমার পিতা মরহুম ইমাম হোসেন চৌধুরী।তিনি ছিলেন ছোট মহেশখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আমার বাবা আমৃত্যু আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন।

আমার বাবার স্বপ্ন ছিলো উপজেলার সবচেয়ে কাছে এবং সবচেয়ে অবহেলিত ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করা। বাবার সেই স্বপ্ন পূরণ হওয়ার আগেই মহান আল্লাহর ঢাকে সাড়া দিয়ে তিনি চিরকালের জন্য আমাদের এতিম করে না ফেরার দেশে চলে গেছেন।বাবার সেই অসামাপ্ত স্বপ্ন পূরণের চেষ্টায় আমি ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতি যুক্ত থেকে বর্তমানে ইউনিয়নবাসীর সেবায় দীর্ঘদিন স্থানীয় আওয়ামীলিগের রাজনীতিতে সক্রিয় একজন কর্মী।

আমি বা আমার পিতা কখনও দলের সুসময় পদ,পদবীর পিছনে ছুটি নাই। আমি এবং আমার পিতা দলের ওই সময়ের পদবীধারী কর্মী যেই সময় অন্যরা দলের নাম নিতেই ভয় পেতো।জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ ধারণ করে, একজন কর্মী হিসেবে সুখে-দুঃখে অতীতেও আপনাদের পাশে ছিলাম ভনিষ্যতেও থাকবো ইনশাল্লাহ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাদার অফ হিউম্যানেটি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার কারিগর, জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত “উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ” এবং “মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স” এই নীতিতে উদ্ভুদ্ধ হয়ে আমি আসন্ন ৯নং ছোট মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি শাহরিয়ায় চৌধুরী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী।

আমি আওয়ামী পরিবারে সন্তান। আওয়ামী লীগ আমার নামে নয় রক্তে। আমি ছাত্র জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত সেটাও আমার দলের সুসময়ে নয় দুঃসময়ে। ২০০১ সাল থেকে ২০০৫ সাল ছিলো বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আওয়ামী লীগ নিধনের সাল, লুটপাঠের সাল,শোষনের সাল,ওই সময়ে দেশ দুর্নীতি হ্যাকট্রিক চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো।সেই সময় বিএনপি-জামাত জোটের ভয়ে আওয়ামীলিগের নাম নিতেই ভয় পেতো, আমি সেই ২০০২ সলে স্কুল ছাত্রলীগ থেকে ২০০৩ সালে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ- সম্পাদক।
২০০৪ সালের ২১আগষ্ট বিএনপি-জামাত জোট যখন তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে,অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে হত্যার উদ্দেশ্যে ইতিহাসে বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলা হয় তখন আমার মরহুম পিতা ইমাম হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে আমরা তাৎক্ষনিক ২০/৩০ জন বিক্ষোভ মিছিল বের করি।যার পরিনতীতে পুলিশের তাড়ায় দীর্ঘদিন গ্রামে ফিরতে পারি নাই,বাড়িতে থাকতে পারি নাই।আমি এবং আমার পরিবার দলের দুঃসময়ের সারথী,দলের সুসময়েও কখনও পদ,পদবীর লোভ লালসা ছিলো না।

আমার বাবা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবেই আমৃত্যু লড়ে গেছেন।এক সময় মহেশখালীকে বলা হতো জামাত-বিএনপির উর্বরভূমি,সেই দুঃসময়ে আমার বাবা দলকে সংগঠিত করার কাজে আমৃত্যু লড়ে গেছেন। আমার বিশ্বাস, দল আমার ছাত্রজীবন থেকেই দীর্ঘদিনের ত্যাগ, দলের প্রতি আমার অবদান মূল্যায়ন করবেন।দলের প্রতি আমার মরহুম পিতার ত্যাগ,দলকে সংগঠিত করতে বাবার অবদান মূল্যায়ন করবেন।আমি বা আমার পরিবার দলের সু-সময়ের কোকিল নই,উড়ে এসে জুড়ে বসা তীর্থের কাকও নয়। যখন এই জনপথে ছাত্রলীগ বা আওয়ামীলিগ নাম নিতেই মানুষ ভয় পেতো আমি সেই সময়ের ছাত্রলীগের পদবীধারী কর্মী।আমার বাবা সেই সময়ের দলের সংগঠক।

আমার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের অংশ হিসাবে একজন নির্যাতিত আওয়ামি পরিবারের সন্তান হিসেবে,একজন আমৃত্যু একনিষ্ঠ বাংলাদেশ আওয়ামীলিগের সংগঠকের সন্তান হিসেবে আমি বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। স্বাধীনতার প্রতিক নৌকা,নৌকা জাতির জনকের নির্বাচনি প্রতিক।নৌকা প্রতিকে নির্বাচন করা আমার স্বপ্ন।

আপনাদের দোয়ায় আমি আশা করি দল আমাকে মূল্যায়ন করবেন।

প্রিয় ইউনিয়নবাসী
আমি আপনাদের সন্তান। আমি আপনাদের মরহুম ইমাম হোসেন চৌধুরীর উত্তরসূরী। যে ইমাম হোসেন চৌধুরী সারা জীবন আপনাদের সেবায় আমৃত্যু লড়ে গেছেন।আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।আমি অতীতেও আপনাদের সুখে-দুঃখে পাশে ছিলাম,আমার বাবার ন্যায় আমৃত্যু সুখে-দুঃখে আপনাদের পাশে থাকব ইনশাল্লাহ।

আমার বিশ্বাস, দল আমাকে মূল্যায়ন করবেন, দলিয় মনোনয়ন দিবেন,স্বাধীনতার প্রতিক নৌকা প্রতিক দিবেন। এরপরও যদি দুর্ভাগ্যক্রমে কোন কারনে দলীয় মনোনয়ন পেতে ব্যর্থ হই তবে সেটা হবে হাইব্রীডদের কাছে ত্যাগীর হার। তবে আমার পরিবারের রাজনীতিই ছিলো দলের দুঃসময়ে হাল ধরা, ত্যাগের রাজনীতি। আমরা কখনও ভোগের রাজনীতি করি নাই, তাই জনগণের দুঃখ, ইউনিয়নবাসীর দুর্দশা চিন্তা করে যেকোন পরিস্থিতিতেই আমি নির্বাচন করে যাবো ইনশাল্লাহ।
আমি আপনাদের দোয়া এবং সমর্থন প্রত্যাশী।

ইতি
আপনাদেরই
শাহরিয়ার চৌধুরী ।

খবরটি সবার মাঝে শেয়ার করেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সব ধরনের নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2020 coxsbazartimes24
Theme Customized By CoxsMultimedia